ভূমিকম্প ও রিখটার স্কেল

Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedInEmail this to someonePin on Pinterest

রিকটার স্কেল একটা লগারিদমিক স্কেল। এই স্কেলে ৬ মোমেন্ট ম্যাগনিটুড (Mw) ভুমিকম্পের চেয়ে ৭ Mw ভূমিকম্প ১০গুণ বেশি শক্তিশালী আর ৮ Mw ভূমিকম্প ১০০গুণ বেশী শক্তিশালী। কাজেই যারা বলছেন নেপালের চেয়ে 4-jan-2016 এর ভূমিকম্প মাত্র ১মাত্রা কম শক্তিশালী তারা ভুল করছেন। নেপালের ভূমিকম্প আজকের চেয়ে ১০গুণ বেশি শক্তিশালী ছিল।

নেপালে ভূমিকম্পের পর এক ইরানী বিজ্ঞানী বলেছিলেন এর চেয়েও ২৪গুণ বেশি শক্তিশালী ভূমিকম্প আগামীতে আঘাত হানবে, তাতে অনেক বড় সুনামী হবে। উনার ফার্সি ভাষা না বুঝতে পেরে অনেক পত্র-পত্রিকায় সেই খবর ছেপে বলা হচ্ছে- রিকটার স্কেলে ২৪ Mw মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত করবে। মানুষ খামোখাই ঘুমাতে ভয় পাচ্ছেন।

বাস্তবতা হচ্ছে- রিকটার স্কেলের সর্বোচ্য পাঠ হচ্ছে ১০ Mw। যদিও ৯.৫ Mw এর চেয়ে বেশি শক্তিশালী ভূমিকম্প কেবলমাত্র তাত্ত্বিকভাবেই ঘটা সম্ভব, বাস্তবে এমন কিছু ঘটলে সেটা কেয়ামত হয়ে যাবে, ভূমিকম্প থাকবে না।

এবার আসি ২৪গুণ শক্তিশালী ভূমিকম্প প্রসঙ্গে। Log (২৪) এর মান হচ্ছে- ১.৩৮ প্রায়। নেপালে হওয়া সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৭.৮ Mw। কাজেই ৭.৮ Mw এর চেয়ে ২৪গুণ শক্তিশালী ভূমিকম্পের মাত্রা রিকটার স্কেলে হবে ৭.৮+১.৩৮=৯.১৮ Mw। জেনে আশ্বস্ত হতে পারেন যে, ১৯৬০ সালের ২২ মে চিলির ভালডিভিয়া ভূমিকম্প ছিল এর চেয়েও ২গুণ শক্তিশালী প্রায় ৯.৫ Mw। পৃথিবীর ইতিহাসের সবচেয়ে শক্তিশালী সেই ভূমিকম্পেও কেয়ামত হয়নি, প্রায় ৬হাজার মানুষ নিহত হয়েছিল। ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নির্ভর করে এটা কোথায় হচ্ছে তার উপর।

ঢাকা শহরকে এপি-সেন্টার করে একটা ৭ Mw ভূমিকম্পও চিলি বা নেপালের চেয়ে অনেক বেশি ক্ষতি করতে পারবে।

প্রতিটি ভূমিকম্পের পরই আমরা অনেক ভয় পাই, দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রস্তুতির কথা বলি। বাস্তবে তার কতটা প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে তা প্রশ্নসাপেক্ষ। যদিও বাংলাদেশের এক মন্ত্রী হাস্যকর মন্তব্য করে বলেছেন ঢাকা শহরে এর চেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প হলেও নাকি কিছু হবে না। এই তথ্য উনি বাটি চালান দিয়ে পেয়েছেন, নাকি ক্রিস্টাল বল দিয়ে জোগাড় করেছেন তা জানতে ইচ্ছে করছে।

অনেকে জানতে চেয়েছেন ভূমিকম্পের পূর্বাভাষ দেয়া যায় কিনা। স্যরি, সঠিকভাবে দিন-ক্ষণ দিয়ে পূর্বাভাষ দেয়া সম্ভব নয়। সিসমোলজিস্টরা কাছাকাছি একটা রেঞ্জ বলতে পারেন মাত্র। তবে মাটির নীচের কিছু সংবেদনশীল প্রাণী ভূমিকম্পের খুব ছোট ছোট ফোরশকও টের পায়, যেটা সিসমোগ্রাফ পর্যন্ত টের পায় না।-

Leave a Reply

Be the First to Comment!

Notify of

wpDiscuz